মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৪:০১ অপরাহ্ন

সর্বশেষ
মাটিরাঙ্গায় পাহাড় কাটার দায়ে ৫০হাজার টাকা জরিমানা ধামইরহাট পৌরসভার নির্বাচনে আবারও নৌকার মাঝি মেয়র আমিনুর রহমান পেলেন দলীয় মনোনয়ন বন বিভাগের অভিযানে ৪০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, ২ একর জমি উদ্ধার নওগাঁর ধামইরহাটে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উদ্বোধন জামাই-শ্বশুরের ওপর হামলার ঘটনায় দোষীদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন নড়াইলের জেলার দত্তপাড়া এলাকায় রেললাইনে আল্ডারপাস নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন কালিয়ায় শ্রমিক লীগের প্রয়াত সভাপতির মৃত্যুতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বাড়ীতে মাদকদ্রব্য রাখার দায়ে স্বামীসহ অভিনেত্রী গ্রেপ্তার বিয়ে করার মতো কাউকে পাইনি; তাই আমি বিয়ে করিনি ফুলবাড়ীতে তারেক রহমানের ৫৬তম জন্মদিন পালন
বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে দেবিদ্বারে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত

বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে দেবিদ্বারে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে কুমিল্লার দেবিদ্বারে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিকালে উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের চরবাকর এলাকায় এ ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ফতেহাবাদ ইউনিয়নকে ১-০ গোলে পরাজিত করে জাফরগঞ্জ ইউনিয়ন বিজয়ী হয়। এ সময় প্রতিযোগী দুই ইউনিয়নের হাজার হাজার দর্শক এ খেলা উপভোগ করেন। জাফরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

কাজী ফরহাদ ইদানীং নীলা কেমন যেনো হয়ে গেছে। ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া করছে না। টাইম মতো ঘুমাচ্ছে না। এভাবে চলতে চলতে একমাস পাড় হয়ে যায়। রাতুলও বুঝে নীলা বড্ড ভালোবাসে তাকে। কিন্তু রাতুল চায় না, তার জন্য নীলার কষ্ট হোক। রাতুলের মা-বাবা সময় করে একদিন নীলার বাসায় যায় একদিন। রাতুল এবং নীলার বিয়ের ব্যাপারে কথা বলে। নীলার বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৬

কাজী ফরহাদ সকাল হয়েছে। মুয়াজ্জিন ফজরের আজান দিচ্ছে মসজিদের মাইকে। ঘরের মোরগ কক্কর-কক্কর ডাকছে। পাখিদের কিচিরমিচির ডাক। এমন একটা মিষ্টি সকাল দেখা সবার ভাগ্যে জুটে না। ভোরের আলো, মনোরম পরিবেশে মনকে মুগ্ধ করে তুলে। এত সুন্দর সকালে রাতুল মন খারাপ করে বসে আছে। নদীর পাড়ে একটা আম গাছের ঘোরায়। বসে বসে কী যেন ভাবছে। হয়তো বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৫

অবশেষে একসাথেকাজী ফরহাদ•রাতুল কবিতা লিখছে। একটু একটু করে লিখছে, তবে মন বসছে না কবিতা লিখায়। কবিতা লেখা বাদ দেয়। গল্প লেখে, কিন্তু গল্প লেখায়ও মন বসছে না। ডায়েরিটা বন্ধ করে দেয়। কলমটা হাত থেকে ডায়েরির উপর রেখে দেয়। ব্যাগ থেকে ল্যাপটপ বের করে। পাওয়ার বাটনে চাপ দেয়। ল্যাপটপ অন হয়। ফেসবুক লগ ইন করে। মেসেজ বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৪

কাজী ফরহাদ ” আচ্ছা ফারিহা তুই একটা হেল্প করবে আমাকে,?” হ্যাঁ বল কী করতে হবে?” তোর ভাইর সঙ্গে আমাকে রিলেশন করিয়ে দে।” মানে কী তুই না সেদিন বললে, ভাইয়ার সঙ্গে তোর রিলেশন। তাহলে আমি আবার রিলেশন করিয়ে দেবো কেন?” আসলে আমি সেদিন মিথ্যে কথা বলেছি। আমি রাতুলকে ভালোবাসি বাট সে আমাকে ভালোবাসে না। প্লিজ দোস্ত বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে

কাজী ফরহাদপর্ব: ০৩ মুঠোফোন হাতে করে ফারিহা আসে রাতুলের কাছে। গ্যালারিতে ঢুকে ছবি দেখায় ফারিহা।” এই দেখ ভাইয়া! এই হলো নীলা।ছবি দেখে রাতুল অবাক হয়। বিস্মিত হয়ে হলে,” ওহ মাই গড! এ মেয়ে অবশেষে, আমার বাসায় এসে পৌঁছে গেছে।রাতুল কথা শুনে ফারিহা বলে,” সবকিছু জেনেও তুই শুধু শুধু ভাব দেখাস কেন ভাই?রাতুল রেগে যায়! রাগান্বিত বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে

কাজী ফরহাদপর্ব: ০২ রাতুলের মা রেজিয়া খাতুন, মর্ডান মেয়ে। ছেলে-মেয়ের সঙ্গে বন্ধুর মতো আচরণ করেন। রাতুল মায়ের সঙ্গে জীবন কাহিনী নিয়ে আলোচানা করে। তবে নীলার ব্যাপারে কিছু বলেনি বলে, তিনি রেগে গেলেন। নীলার সম্মুখে রেজিয়া খাতুন বললেন,“তলে তলে ছেলে আমার এতকিছু করে ফেলেছে, অথচ আমি জানিনা। আজ আসুক বাসায়, তবে তার একদিন কী আমার একদিন।রেজিয়া বিস্তারিত পড়ুন..

অবশেষে একসাথে-পর্ব: ০৭

অবশেষে একসাথে

কাজী ফরহাদপর্ব:০১আমেরিকা থেকে গতকাল রাতে রাতুল এসেছে দেশে। আজ বিকেলে ঘুরতে বের হয়েছে। একটানা পাঁচ-বছর পর সে দেশে ফিরছে। সবকিছু কেমন যেন বদলে গেছে। রাতুল গাড়ি নিয়ে বের হয়েছে। চারপাশ দেখছে, কিন্তু পাঁচ-বছর আগের সেই মনোরম পরিবেশ এখন নেই। কেমন যেন নোংরা লাগছে। আমেরিকা থাকার কারনে নিজের দেশের পরিবেশ টা ভালো লাগছে না। গাড়ি ড্রাইভ বিস্তারিত পড়ুন..

“আড়ালে”

লেখক: এম সোহাগ হোসেন পাত্রীকে হালকা মেরুন রংয়ের একটা শাড়ী পড়িয়ে আমার সামনে বসিয়ে দেওয়া হলো। নাম আয়েশা। পাশে ছিলো আমার মামা আর আম্মা। এসেছি মেয়ে দেখতে। কিন্তু এ কি! এতো ছোটখাট একটা হাতি। মানুষ এতো মোটা হয় কেমনে। না জানি কত খায়। আমি একবার তাকিয়ে দ্বিতীয়বার আর তাকানোর সাহস পায়না। শরবতের গ্লাস হাতে নিয়ে বিস্তারিত পড়ুন..

© All rights reserved © 2020 blog.bddorpon24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি